Skin Allergy: ত্বকের অ্যালার্জি, জ্বালাপোড়া এবং চুলকানি থেকে উপশম পেতে ঘরোয়া উপায়

0

ত্বকের অ্যালার্জির সমস্যা খুবই সাধারণ, গরমের দিনে এর ঝুঁকি আরও বেড়ে যায়। ত্বকে এই অ্যালার্জি যে কোনও কারণে হতে পারে, যেমন সূর্যের আলো, ধুলোবালি, দূষণ বা কসমেটিক পণ্য ইত্যাদি। চিকিৎসা পরিভাষায়, ত্বকের অ্যালার্জি দেখা দেয় যখন আমাদের ইমিউন সিস্টেম কোনো বাহ্যিক এজেন্টের বিরুদ্ধে প্রতিক্রিয়া দেখায়। কিন্তু এমন নয় যে, যে জিনিসে আপনার অ্যালার্জি, বাড়ির বা আশেপাশের লোকজনেরও তাতে সমস্যা আছে। প্রতিটি ব্যক্তির ত্বক ভিন্ন এবং এটি বিভিন্ন পরিস্থিতিতে প্রতিক্রিয়া করতে পারে।

ত্বকের এলার্জি সমস্যা

গ্রীষ্মের দিনে প্রচণ্ড সূর্যালোক এবং তাপমাত্রা বৃদ্ধির কারণে ত্বকে অ্যালার্জি হওয়া খুবই সাধারণ বলে মনে করা হয়। এ কারণে ত্বকে চুলকানি, জ্বালাপোড়া, লালচেভাব বা ফুসকুড়ির সমস্যা হতে পারে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, এই ধরনের সমস্যা এড়াতে অ্যালার্জেনের সংস্পর্শে সীমিত করা বা এড়ানো সবচেয়ে কার্যকর বলে মনে করা হয়। এর জন্য প্রথমেই বুঝতে হবে আপনার অ্যালার্জির প্রধান কারণগুলো কী কী?

সাধারণত ত্বকের অ্যালার্জির সমস্যা নিজে থেকে বা কিছু হালকা ওষুধ-ক্রিমে সেরে যায়। এর জন্য কিছু ঘরোয়া প্রতিকারকেও বেশ কার্যকর বলে মনে করেন বিশেষজ্ঞরা, যেগুলো ব্যবহার করে শুধু ত্বকের অ্যালার্জিই এড়ানো যায় না, অ্যালার্জি দেখা দিলেও সহজে নিরাময় করা যায়। আসুন এমন কিছু ব্যবস্থা সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

অ্যালোভেরা ব্যবহার

অ্যালোভেরা বা ঘৃতকুমারী ব্যবহার

অ্যালোভেরা একটি অত্যন্ত কার্যকরী ওষুধ যা প্রতিটি বাড়িতে সহজেই পাওয়া যায়, যার অনেক স্বাস্থ্য উপকারিতা রয়েছে। ডায়াবেটিস ও পেটের রোগের ঝুঁকি কমানোর পাশাপাশি ত্বকের সমস্যায়ও অ্যালোভেরা বেশ কার্যকর। ত্বকে অ্যালোভেরা জেল প্রয়োগ করা কোষগুলিকে পুষ্ট করে এবং তাদের প্যাথোজেনের বিরুদ্ধে সহজে প্রতিক্রিয়া জানাতে সক্ষম করে। অ্যালোভেরা জেল ত্বকে লাগালে অ্যালার্জির সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

বরফ থেরাপি

ত্বকের অ্যালার্জির কারণে একজিমা বা কাঁটাযুক্ত ফুসকুড়ি হওয়া খুবই সাধারণ। এই সমস্যাগুলি প্রতিরোধ করতে, 10-15 মিনিটের জন্য বরফের প্যাক দিয়ে কম্প্রেস করা উপকারী। এটি ত্বককে অসাড় করে দেয়। ত্বকের বিষাক্ততা কমাতে আইস থেরাপিও আপনাকে দারুণ সাহায্য করতে পারে। চুলকানি থেকে তাত্ক্ষণিক উপশম পেতে এই প্রতিকারটি আপনার পক্ষে খুব সহায়ক হতে পারে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন যে প্রত্যেকের ত্বক এবং এর সংবেদনশীলতার মাত্রা আলাদা, তাই এটি প্রয়োজনীয় নয় যে আপনিও সেই প্রতিকার পান যা থেকে কেউ উপকৃত হয়েছে। কোনো ঘরোয়া প্রতিকার ব্যবহার করার আগে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন।

নারকেল তেলের উপকারিতা

নারকেল তেল

অনেক ধরনের ত্বকের সমস্যায় নারকেল তেলের ব্যবহার বিশেষ উপকারী বলে মনে করা হয়। অ্যালার্জির সমস্যা কমাতেও নারকেল তেল উপকারী। এটি ত্বককে কোমল করতে, শুষ্কতা ও চুলকানি কমাতে খুবই উপকারী। নারকেল তেল প্রদাহ কমিয়ে সংক্রমণ বা অ্যালার্জি উপশমে উপকারী। ত্বকের অ্যালার্জির সমস্যায় নারকেল তেল লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন, দারুণ উপকার পাওয়া যায়।

আপেল সিডার

আপেল সিডার ভিনেগারের উপকারিতা

ত্বকের অ্যালার্জি কখনও কখনও ব্যাকটেরিয়া বা ভাইরাসের সংস্পর্শে আসার কারণে হতে পারে, এই ক্ষেত্রে ত্বকে তীব্র চুলকানি এবং ফুসকুড়ি হয়। এসব সমস্যা প্রতিরোধে আপেল সিডার ভিনেগার লাগালে খুব উপকার পাওয়া যায়। এটি ত্বকের পিএইচ স্তরের ভারসাম্য বজায় রাখে যাতে ইমিউন সিস্টেম প্যাথোজেনগুলির সাথে লড়াই করে।

সহজেই প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে পারে। মনে রাখবেন ত্বকে আপেল ভিনেগার লাগানোর আগে পানিতে মিশিয়ে পাতলা করে নিন, না হলে জ্বালাপোড়া হতে পারে।

Tags

Post a Comment

0 Comments
Post a Comment (0)

#buttons=(Accept !) #days=(20)

Our website uses cookies to enhance your experience. Learn More
Accept !
To Top