Anemia: এই জিনিসগুলো খেলে রক্তস্বল্পতা দূর হয়, এই সমস্যা বেশির ভাগ মহিলাদের হয়

Anemia

অঙ্গগুলিকে সুস্থ রাখতে এবং সঠিকভাবে কাজ করার জন্য পর্যাপ্ত রক্ত ​​সঞ্চালন অপরিহার্য। অক্সিজেন এবং পুষ্টি রক্তের মাধ্যমে শরীরের বিভিন্ন অংশে পৌঁছাতে থাকে যাতে তারা সঠিকভাবে কাজ করতে পারে। রক্তে উপস্থিত শ্বেত রক্তকণিকা ও লোহিত কণিকা শরীরকে সংক্রমণ থেকে রক্ষা করতে সাহায্য করে। কিছু শারীরিক অসুস্থতার কারণে শরীরে রক্তের অভাব দেখা দেয়।

রক্তাল্পতা লোহিত রক্তকণিকার অভাবকে বোঝায় যা অঙ্গগুলিতে অক্সিজেন সরবরাহ করে। শরীরে শ্বেত ও লোহিত রক্ত কণিকার ঘাটতি হলে বিভিন্ন জটিলতা সৃষ্টি হয়। 

অ্যানিমিয়া বা রক্তশূন্যতার সমস্যা সাধারণত মহিলাদের মধ্যে বেশির দেখা যায়। এই সমস্যার সময়মতো যত্ন না নিলে অনেক ধরনের সমস্যা হতে পারে। সাধারণত আয়রনের অভাবজনিত রক্তাল্পতা আয়রনের পরিপূরক দ্বারা সংশোধন করা যায়। আপনারও যদি রক্তস্বল্পতা থাকে, তবে তা খাদ্যের মাধ্যমে পূরণ করার জন্য চেষ্টা করা উচিত। আসুন জেনে নিই কোন কোন জিনিস সেবন করলে রক্তস্বল্পতা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

ভিটামিন C যুক্ত খাদ্য গ্রহণ

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলছেন, সাইট্রাস জুস বা ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ অন্যান্য খাবার খেলে শরীরে আয়রনের পরিমান বাড়ানো যায়। তাই শরীরে রক্তের অভাব দূর করতে ভিটামিন-সি যুক্ত খাওয়ার অত্যান্ত জরুরি। কমলালেবু এবং লেবুর মতো সাইট্রাস ফল ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ এবং শরীরে আয়রন ভালোভাবে পরিমান বাড়াতে সাহায্য করে। নিয়মিত আঙ্গুর, কিউই, শাক, বাঙ্গি, স্ট্রবেরি ইত্যাদি খাওয়া আপনার জন্য খুবই সহায়ক।

পালং শাক

পালং শাক সবচেয়ে উপকারী

পালং শাক এমন একটি খাবার, যা খেলে রক্তস্বল্পতা নিরাময় সহজে করা যায়। গাঢ় সবুজ শাক-সবজি এবং শাকসবজি আয়রনের একটি ভালো উৎস এবং এগুলোকে খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করলে রক্তস্বল্পতা সহজেই দূর করা যায়। পালং শাক অন্যান্য পুষ্টির যোগান দিয়ে শরীরের উপকারে খুবই সহায়ক।

লাল মাংস খাওয়ার উপকারিতা

গবেষকরা বলছেন, যারা নিয়মিত হাঁস-মুরগির মাংস এবং মাছ খান তাদের আয়রনের ঘাটতি কম হয়। বিশেষ করে লাল মাংস আয়রনের অন্যতম সেরা উৎস। লাল মাংস খাওয়া রক্তাল্পতায় আক্রান্ত ব্যক্তিদের জন্য বিশেষভাবে উপকারী। তবে এটি বেশি পরিমাণে খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে  ক্ষতিকর।

গোটা শস্য

এই জিনিসগুলি থেকেও যথেষ্ট আয়রন পেতে পারেন

আমাদের শরীর অন্যান্য উৎসের তুলনায় মাংস থেকে বেশি আয়রন শোষণ করে। অন্যদিকে, আপনি যদি মাংস না খান, তাহলে আয়রন-সমৃদ্ধ উদ্ভিদ-ভিত্তিক খাবারের পরিমাণ বাড়াতে হবে। এর জন্য আপনি ডায়েটে এগুলো অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন।
  • লেগুম এবং ডাল।
  • গাঢ় সবুজ শাক সবজি
  • শুকনো ফল, যেমন কিশমিশ এবং এপ্রিকট
  • মটর
  • কুমড়োর বীজ বা গোটা শস্য।
ISTBD

ISTBD is a personal health and fitness Blog. We provide health, yoga, food, beauty related information and News.

Post a Comment (0)
Previous Post Next Post